বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮

সমকালীন শিল্পকলা ও বিশ্বসভ্যতা বিভাগ

বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের চারটি কিউরেটরিয়াল বিভাগের মধ্যে সমকালীন শিল্পকলা ও বিশ্বসভ্যতা বিভাগ একটি। এ বিভাগের প্রধান কাজ হলো: আধুনিক চিত্রকলা, ভাস্কর্য, প্রিন্টমেকিং, কারুশিল্প, ট্যাপেস্ট্রিসহ অন্যান্য অমূল্য আধুনিক শিল্পকর্ম প্রদর্শনের মাধ্যমে বাংলাদেশের সমকালীন শিল্পকলা উপস্থাপন এবং বিশ্বসভ্যতার নিদর্শন হিসেবে বিভিন্ন দেশের   প্রতিনিধিত্বমূলক নিদর্শন উপস্থাপন। এ বিভাগ জাতীয়ভাবে স্বীকৃত নবীন ও প্রবীন  শিল্পীসহ খ্যাতিমান শিল্পীদের  শিল্পকর্ম সংগ্রহ করে থাকে, যেমন- শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন, কামরুল হাসান, এস. এম. সুলতান, সফিউদ্দিন আহমেদ, মোহাম্মদ কিবরিয়া, হামিদুর রহমান, কাইয়ুম চৌধুরী এবং নভেরা আহমেদের শিল্পকর্ম। শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের নামে একটি গ্যালারি উৎসর্গ করা হয়েছে। বহু শিল্পী এবং ভাস্করদের নান্দনিক ও উদ্ভাবনী প্রচেষ্টার মাধ্যমে বিভিন্ন ঘরানার শৈল্পিক অভিব্যক্তি দ্বারা বাংলাদেশের সমকালীন শিল্পকলা সমৃদ্ধ হয়েছে। এ বিভাগের একটি প্রধান দায়িত্ব সৃজনশীলতা এবং স্কুল অব আর্টের মূল্যায়ন করা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের চিত্রকলা উপস্থাপনের মাধ্যমে এটি বিশ্বসভ্যতা হিসেবে নকশায়িত হয়েছে। ভুটান, চীন, মিশর, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, জাপান, কেনিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, দক্ষিণ কোরিয়া, শ্রীলংকা, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, যুক্তরাজ্য এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে মূল শিল্পকর্ম সংগ্রহ করে প্রদর্শন করা হয়েছে। বিশ্বসম্পদের অন্তর্ভূক্ত চিত্রকর্মের অনুকৃতি প্রদর্শনের মাধ্যমে বিশ্বসভ্যতার অংশটি সমৃদ্ধ করা হয়েছে। সমকলীন শিল্পকলা এবং বিশ্বসভ্যতা বিভাগের নিয়ন্ত্রণে আট টি স্থায়ী গ্যালারি রয়েছে। ৪৪ নম্বর গ্যালারিতে চীনা, ইরানী, কোরিয়ান এবং সুইজারল্যান্ড কর্ণার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। শিল্পকর্ম সংগ্রহ, সংরক্ষণ, প্রদর্শন ও দালিলিকরণের পাশাপাশি সমকালীন শিল্পকলা এবং বিশ্বসভ্যতা বিভাগ বক্তৃতা, সেমিনার, সিম্পোজিয়াম, বিশেষ প্রদর্শনীর আয়োজন এবং ক্যাটালগ  ও ফোল্ডার প্রকাশ করে।


Share with :

Facebook Facebook